জনগণকে বিক্ষোভে নামার আহ্বান সু চির

সেনা অভ্যুত্থানের পর মিয়ানমারের সর্বশেষ সংবাদ

দ্য গার্ডিয়ান জানায়, আটক হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে জনগণকে বিক্ষোভে নামার আহ্বান জানিয়েছেন সু চি.

সোমবার দেশটির ক্ষমতাসীন দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসির (এনএলডি) ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ সংক্রান্ত একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

এনএলডির চেয়ারম্যান উইন হেইন বলেন, ওই বিবৃতি নির্ভরযোগ্য এবং এটি সু চির ইচ্ছার প্রতিফলন। ’

তিনি বলেন, ‘আমার জীবনের দিব্যি দিয়ে বলছি, এটি অং সান সুচির নির্ভরযোগ্য বিবৃতি, যা তিনি জনগণের উদ্দেশ্যে দিয়েছেন।’

সু চিকে ছেড়ে না দিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে:জো বাইডেন

জো বাইডেন

মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের বিষয়ে দেশটির সেনা কর্মকর্তাদের সতর্ক করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসন।

অভ্যুত্থানে আটক অং সান সু চি-সহ মিয়ানমারের বেসামরিক রাজনীতিবিদদের ছেড়ে দেওয়া না হলে ‘ব্যবস্থা নেওয়া হবে’ বলে সতর্ক করেন বাইডেন।

সোমবার -১লা ফেব্রুয়ারি ২০২১ ইং  সংবাদমাধ্যম পলিটিকো এ তথ্য জানায়।

গত কয়েক বছরে এশিয়ার দেশগুলোতে গণতন্ত্রের উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে, যা মিয়ানমারের সেনা অভ্যুত্থানের কারণে হুমকির মুখে পড়েছে।

এছাড়া, মিয়ানমারকে প্রতিবেশী চীনের প্রভাবমুক্ত করার জন্যেও দেশটিতে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় উৎসাহ দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।

সেনা অভ্যুত্থানের পর মিয়ানমারের সর্বশেষ সংবাদ

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, মিয়ানমারের পরিস্থিতি নিয়ে ভারত ‘গভীরভাবে উদ্বিগ্ন’ এবং সেখানকার পরিস্থিতি ‘নিবিড়ভাবে’ পর্যবেক্ষণ করছে।

আরো বলা হয়, ‘মিয়ানমারের গণতন্ত্রে উত্তরণের বিষয়ে সব সময় সমর্থন জানিয়ে আসছে ভারত।

আমরা বিশ্বাস করি, আইন এবং গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া অবশ্যই সমুন্নত রাখতে হবে। আমরা পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। ’
আশাবাদী পাকিস্তান

এক বিবৃতিতে পাকিস্তান বলে, ‘আমরা আশা করি, সংশ্লিষ্ট সব পক্ষই নিজেদের সংবরণ করবে, আইনের শাসনকে সমুন্নত রাখবে, গঠনমূলকভাবে আলোচনা করবে, এবং শান্তিপূর্ণ পরিস্থিতির দিকে এগিয়ে যাবে। ’

গত নভেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সু চির ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসি (এনএলডি) সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে।

তবে, এ ফলাফল নিয়ে মিয়ানমারের বেসামরিক সরকার এবং প্রভাবশালী সামরিক বাহিনীর মধ্যে কয়েকদিন ধরে দ্বন্দ্ব ও উত্তেজনা চলতে থাকায় এ সামরিক অভ্যুত্থান ঘটেছে বলে জানায় বিবিসি।

সব ব্যাংক বন্ধ

সামরিক অভ্যুত্থানের পর মিয়ানমারে সব ব্যাংক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এর কারণ হিসেবে দুর্বল ইন্টারনেট নেটওয়ার্কের কথা বলা হয়েছে।

অ্যাসোসিয়েশনের ওই ঘোষণায় বলা হয়, মিয়ানমার ব্যাংকস অ্যাসোসিয়েশনের সব সদস্য ১ ফেব্রুয়ারি থেকে সর্বসম্মতিক্রমে তাদের ব্যাংক বন্ধ করছে।

24livenewsbd ~ Getting all breaking and latest news 24 live in Bangla/বাংলা on 24livenewsbd.সর্বশেষ,রাজনীতি, বিশ্ব,খেলাধুলা, বিনোদন সহ আরো অনেক ফিচার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here